মাদ্রাসায় বলাৎ’কার বিষয়ক বইটি জননিরাপত্তায় হুম’কি: গেজেট প্রকাশ

0 Shares

কওমি মাদ্রাসার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর ঘটে যাওয়া বলাৎ’কারের ঘটনা নিয়ে লেখা ‘বিষফোঁড়া’ উপন্যাসটি নিষি’দ্ধ করেছে সরকার। এই উপন্যাসটির বিষয়বস্তু দেশের শান্তি শৃঙ্খলা পরিপ’ন্থী ও জন নিরাপত্তার জন্য হুম’কি হওয়ায় তা নিষি’দ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আর এই ঘোষণা সম্বলিত গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার গত ২৪ আগস্ট তারিখে।

প্রকাশিত গেজেটে বলা হয়েছে, সরকারের কাছে এ মর্মে প্রতীয়মান হয় যে, সাইফুল বাতেন টিটো রচিত ও নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজারের জালাকান্দির ‘জংশন’ প্রকাশিত কওমি মাদ্রাসার শিশু ধ**ণ বিষয়ক ‘বিষফোঁড়া’ উপন্যাসটি দেশের শান্তি শৃঙ্খলা পরিপ’ন্থী। ইতোমধ্যে উপন্যাসটি জন নিরাপত্তার জন্য হুম’কি বলে বিবেচিত হওয়ায় বাংলাদেশে বইটি নিষি’দ্ধ ঘোষণা করা হলো।

ছবি: প্রকাশিত গেজেট

উপন্যাসটি প্রকাশের পর সবশেষ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে একুশে বই মেলায় নিয়ে আসা হয়, যার প্রথম মুদ্রণের ৫০০ কপি বইমেলায় বিক্রি হয়েছে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে উপন্যাসটির রচয়িতা সাইফুল বাতেন টিটো সময় এখনকে বলেন, যারা উপন্যাসটি নিষি’দ্ধ করেছে তারা বইটি আসলে পড়েই দেখেননি। উপন্যাসটি নিষি’দ্ধ করার মতো কোনো গ্রাউন্ড নেই।

তিনি বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে মাদ্রাসায় গিয়ে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে বইটি লিখেছি। দেশের বিশিষ্টজনেরা বইটি পড়ে সাধুবাদ জানিয়েছেন। তারা বলেছেন এটি একটি ইতিহাস।

সাহিত্যিক সাইফুল বাতেন বলেন, প্রথম মুদ্রণে ব্যাপক সাড়া পেয়ে আমরা দ্বিতীয় মুদ্রণে গেছি, প্রচুর মানুষ কিনছে। এরপর এতদিন পর হঠাৎ সরকারের টনক নড়লো। একটা স্বাধীন দেশে বই নিষি’দ্ধ হবে এটা আশা করা যায় না। এটা ষড়’যন্ত্র, বাকস্বাধীনতা পরিপ’ন্থী। আমি এই গেজেট বাতিল চাই।

জংশন প্রকাশনীর সত্ত্বাধিকারী মোশাররফ মাতুব্বর বলেন, মেলায় ছাড় দেওয়ার পর উপন্যাসটি প্রতি কপি ১৯২ টাকায় বিক্রি করা হয়। তখন পুলিশ এসে ২০ কপি নিয়ে যায়। এই উপন্যাসে যেহেতু ধর্মীয় কোনো বিত’র্কিত কন্টেন্ট নেই, শুধু মাদ্রাসায় শিশু বলাৎ’কার বিষয়ে বলা হয়েছে, তাই পুলিশের পক্ষ থেকে আমাদের আর কিছু বলা হয়নি। গেজেট প্রকামের বিষয়ে আমি এখনো জানি না।

তিনি আরও বলেন, প্রথম মুদ্রণ শেষ হওয়ার পর রিয়াজ ওসমানী নামে একজন ইংল্যান্ডপ্রবাসী বাংলাদেশি আমাদের মাধ্যমে এর দ্বিতীয় মুদ্রণ করিয়ে বিপণনের দায়িত্ব নেন। আমরা এখন আর উপন্যাসটি বিক্রি করছি না।

বই মেলায় স্টল পেতে একটি প্রকাশনীর যে পরিমাণ বই থাকতে হয় সেই শর্ত পূরণ করতে না পারায় গত বই মেলায় স্টল পায়নি ‘জংশন’। সে কারণে একটি লিটল ম্যাগাজিনের স্টল থেকে উপন্যাসটি বিক্রি করা হয়েছিল বলে জানান মোশাররফ।

0 Shares