ভারতকে কোন ভাবেই পাত্তা না দিয়ে এবার গালওয়ানে নির্মাণ কাজ শুরু চীন সেনারা

800 Shares

লাদাখ সীমান্তে সোমবার ঘটে যাওয়া ভয়াবহ সংঘর্ষের পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে শান্তি স্থাপনের জন্য আলাপ চলছিল। তবে এত কিছুর মধ্যেও চীন তার শক্তি প্রদর্শন করেই চলছে। অস্ত্র সমেত চীনা সেনারা গালওয়ানে অবস্থান করে নির্মাণ কাজও শুরু করে দিয়েছে বলে জানা যায়।

বুধবার প্রথমবার চিনের তরফে দাবি করা হয়েছিল যে গালওয়ান উপত্যকা তাদের দেশের অংশ। আর সেই দাবির একদিনের মধ্যেই এবার সেই জায়গা স্থায়ী দখল করার কলা-কৌশল শুরু করে দিয়েছে চীন।

সীমান্তে চীন নির্মাণযন্ত্রসহ কয়েকশো পিএলএ সৈনিক পাঠিয়েছে। খুব দ্রুতই তারা সেখানে স্থায়ী সেনা ক্যাম্প তৈরি করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পরিস্থিতি যেদিকে এগোচ্ছে তাতে, চিনের সঙ্গে যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি হওয়া এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এদিকে চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষের পরই লাদাখেও বাড়তি বাহিনী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এই আবহে দুই দেশের মেজর জেনারেল পর্যায়ে তিন ঘণ্টার বৈঠক হয়েছিল বুধবার। তবে সেই বৈঠক থেকে সুষ্ঠু সমাধান সূত্র অধরাই রয়ে গিয়েছে বলে খবর। ফের আজ এই বিষয়ে বৈঠকে বসছেন দুই দেশের কর্মকর্তারা।

বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হচ্ছে করোনাভাই’রাস। দিনদিন এই ভাই’রাসে মৃতের সংখ্যা বে’ড়েই চলছে। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মৃ’ত্যু হয়েছে ৮ হাজার মানুষের। এরইমধ্যে আ’ক্রা’ন্তের সংখ্যা ২ লাখ ছা’ড়িয়েছে।

এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৬৩ হাজার ৬৮৮ জন। ইতোমধ্যে এই ভাই’রাসে বাংলাদেশে একজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। আ’ক্রা’ন্ত হয়েছে ১৮ জন। এমতাবস্তায়, মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববির প্রধান ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রহমান সুদাইসি দিন দিন কাবা শরিফ ও মসজিদে নববি মুসল্লিহীন হয়ে যাওয়ায় আগেবপ্রবণ হয়ে পড়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তার আবেগমাখা প্রর্থণা সবার হৃদয়কে না’ড়া দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ টুইটারে তিনি উল্লেখ করেন- – হে আল্লাহ! আপনার ঘর থেকে আমাদের বি’চ্ছিন্ন করবেন না।

– হে আল্লাহ! আমাদের পাপের কারণে পবিত্র মসজিদের নামাজের জামাআত থেকে বঞ্চিত করবেন না। – হে আল্লাহ! আপনার কাছে আমাদের আবার ফিরিয়ে নিন। – হে আল্লাহ! আমাদের তাওবা কবুল করুন। – হে আল্লাহ! আমাদের এবং মুসলিম উম্মাহকে সব ধরণের মহামা’রি ও দূ’রারো’গ্য ব্যা’ধি থেকে হেফাজত করুন।

কাবা শরিফের প্রধান ইমাম শায়খ আব্দুর রহমান আস-সুদাইসির আবেগঘন এ আহ্বানগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এভাবেই ওঠে এসেছে। আল্লাহর কাছে তিনি আরও আহ্বান করেন- – হে আল্লাহ! মুসিবত দিন দিন কঠিন থেকে ক’ঠিন হচ্ছে। চারদিক অ’ন্ধকার হয়ে আসছে।

তুমি ছাড়া আমাদের ফরিয়াদ শোনার আর কেউ নেই হে আল্লাহ!, তুমি ছাড়া আর কে আছে? হে আল্লাহ! যার কাছে আমরা সাহায্য চাইবো। – হে আল্লাহ! আমাদের এ অবস্থার উপর দয়া করুন। আমাদের অক্ষমতাগুলো দূর করে আমাদের ক্ষমা করুন। হে আল্লাহ! তুমিই আমাদের অভিভাবক

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে প্রথম জোয়ারে তছনছ ফ্রান্স ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। দীর্ঘ লকডাউনের পর স্বাভাবিক জীবনের ফিরতে শুরু করেছে দেশটির জনগণ; যদিও এখনো সংক্রমণ এবং মৃত্যু থামেনি। এরমধ্যেই করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ‘প্রথম বিজয়’ ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। রোববার টেলিভিশনে দেয়া ভাষণে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এদিকে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো বলেন, প্যারিসসহ গোটা ফ্রান্সকে আগামী সোমবার (১৬ জুন) গ্রিন জোনে পরিণত হবে অর্থাৎ সারাদেশে সতর্কতা সর্বনিম্ন করা হবে। এরফলে দেশটিতে ক্যাফে এবং রেস্টুরেন্টগুলো সম্পূর্ণরূপে খুলতে পরবে।

ভাষণে ম্যাক্রো বলেন, এই প্যানডেমিকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ হয়নি তবে আমি প্রথম জয়ের জন্য আনন্দিত।

অতিমারি মোকাবেলায় ফ্রান্স এবং ইউরোপকে অন্য দেশের উপর নির্ভরশীলতা কমানোর জন্যও কাজ করবেন বলে ঘোষণা দেন তিনি। বলেন, আমি চাই আমরা যে শিক্ষা পেয়েছি সেটা যেনো কাজে লাগাতে পারি।

পরিসংখ্যান বিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য মতে, প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফ্রান্সে করোনা ভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৭ হাজার ২২০ জন। এরমধ্যে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৪০৭ জন। আর সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ৭২ হাজার ৮৫৯ জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন ৪০৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন আর মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের।

800 Shares