বিস্ফোরণে চূর্ণ-বিচূর্ণ মসজিদ, অক্ষত কোরআন-হাদিস!

0 Shares

নারায়ণগঞ্জের নারায়ণগঞ্জ শহরের তল্লা এলাকার বাইতুল সালাত জামে মসজিদে ছয়টি এসির বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত (শনিবার বেলা ১১টা) প্রাণ হারিয়েছেন ১২ জন। ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও অনেকেই।

শুক্রবার এশার নামাজ শেষে মোনাজাত চলাকালে বিস্ফোরণের পর পুরো মসজিদের দেয়া-ফ্যানসহ সব ভেঙে ওলট-পালট হয়ে গেছ, মসজিদের জানালার কাচ ও দেয়ালের টাইলস চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে গেছে। তবে আশ্চর্যের বিষয়- ক্ষত-বিক্ষত মসজিদে অক্ষত অবস্থায় রয়েছে পবিত্র আল কোরআন।

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে মসজিদে গিয়ে দেখা যায়, কোরআন শরীফ ও হাদিস শরীফগুলো রয়েছে অক্ষত।

স্থানীয় কাউন্সিলর জমশের আলী ঝন্টু জানান, জায়নামাজ, তসবিস, থাই গ্লাস, টাইলস ফেটে ভেঙে টুকরো টুকরো হলেও অক্ষত রয়েছে কোরআন শরীফ ও হাদিস শরীফ। পুড়েছে জায়নামাজ, প্লাস্টিকের চেয়ার, বিস্ফোরণে বাঁকা হয়ে গেছে ফ্যানগুলো। তবে কোরআন শরীফ ও হাদিস শরীফগুলো যেভাবে ছিল ঠিক সেভাবেই আছে।

মসজিদ কমিটির সভাপতি গফুর মেম্বারের ভাই আবুল কাশেম জানান, পুরো মসজিদ ওলট-পালট হয়ে গেলেও অক্ষত রয়েছে পবিত্র আল কুরআন। হাদিস শরীফগুলোরও আছে অক্ষত।

উল্লেখ্য, শুক্রবার নারায়ণগঞ্জে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পশ্চিম তল্লার বাইতুছ সালাত জামে মসজিদে এশার নামাজ শেষে মোনাজাত চলাকালে বিস্ফোরণ হয়। এ ঘটনায় দগ্ধ ৩৭ জনকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে ভর্তি করা হয়। তাদের শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টা পর্যন্ত এক শিশু ও মুয়াজ্জিনসহ ১২ জন মারা গেছেন। বাকিদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

0 Shares