ফিলিস্তিনের ১৭ বছরের তরুণকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে ইসরাইল

0 Shares

ইসারাইলের সামরিক আদালত ফিলিস্তিনি এক কিশোরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে বলে জানায় স্থানীয় গণমাধ্যম। ১৭ বছর বয়সি খলিল জব্বারিনের বিরুদ্ধে মার্কিন নাগরিক এরি ফুল্ডকে ২০১৮ সালে পশ্চিম তীরে হত্যা করার অভিযোগ আনা হয়।

গত জানুয়ারিতে ইসরাইলের একটি আদালত জব্বারিনকে হত্যার জন্য দোষী সাব্যস্ত করে, পাশাপাশি আরো তিনটি হত্যা চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়।

ফিলিস্তিনি মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলোর মতে, বর্তমানে সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নাগরিক ইসরাইলের বিভিন্ন কারাগারে বন্দী রয়েছে। এদের মধ্যে অনেকেই যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছে। সূত্র: ইয়েনি শাফাক

মা-বাবার হত্যাকারীদের খুন করে ভাইরাল এই তরুণী

তালেবান জঙ্গিদের হাতে খুন হয়েছিল মেয়েটির বাবা-মা। বদলা হিসেবে নিজ হাতে গুলি করে হত্যা করেছেন মা-বাবার সেই খুনিদের। এ যেন হার মানালো সিনেমার গল্পকেও। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন তালেবান। গত সপ্তাহে আফগানিস্তানের ঘোর প্রদেশে ঘটেছে এই ঘটনা।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, এই তরুণীর নাম কামার গুল। হঠাৎ করেই তাদের বাড়িতে হামলা চালায় তালেবান জঙ্গিরা। জঙ্গিরা গ্রাম প্রধানগুলের বাবাকে খুঁজছিল। তিনি সরকার সমর্থক ছিলেন। কামার গুলের বাবাকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায় তারা।

এসময় কামার গুলের মা বাধা দিতে চাইলে বাড়ির বাইরে উভয়কে হত্যা করে তালেবান জঙ্গিরা। ঘরের ভেতরে থাকা কন্যা গুল আর বসে থাকতে পারেননি। তাতে তুলে নেন অস্ত্র। দু’জন তালেবান জঙ্গিকে মেরে আরও কয়েকজনকে আহত করে উপযুক্ত বদল নেয় সে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পুলিশ কর্মকর্তা রহমান মালেকজাদা বলেন, বাড়ির ভেতরে থাকা কামার গুল তাদের পারিবারিক অস্ত্র একে-৪৭ বন্দুক হাতে তুলে নেয়। প্রথমে তার বাবা-মাকে হত্যাকারী দুই তালেবান যোদ্ধাকে হত্যা করে।

এরপর আরও কয়েকজনকে আহত করে। প্রতিশোধ নেওয়ার পর গুলদের বাড়িতে হানা দিতে আসছিল তালেবান সদস্যরা। তবে গ্রামবাসী ও সরকার সমর্থিত বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে পরাস্ত হয়ে পিছু হটে তারা।

কামার গুল ও তার ছোট ভাইকে আফগানিস্তানের নিরাপত্তাবাহিনীর হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঘোর প্রদেশের গভর্নরের মুখপাত্র মোহামেদ আরেফ আবের। বীরত্ব দেখানোর পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুলের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা চলছে। মাথার কাপড় ও হাতে মেশিনগান নিয়ে তোলা গুলের একটি ছবি গত কিছুদিন ধরে ভাইরাল।

ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য আলাদা রাষ্ট্র থাকা উচিত: জোর গলায় বললেন চীনা প্রেসিডেন্ট

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং জোর দিয়ে বলেছেন, ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য আলাদা রাষ্ট্র থাকা উচিত। ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সমস্যার দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধান হচ্ছে শ্রেষ্ঠ উপায়।

গতকাল সোমবার ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে ফোনালাপে জিনপিং এসব কথা বলেছেন। ফোনালাপে তিনি ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি চীনের পক্ষ থেকে সমর্থন জানান এবং ফিলিস্তিনি শিশুকে মধ্যপ্রাচ্যের কোর ইস্যু বলে তিনি মন্তব্য করেন।

চীনা প্রেসিডেন্ট বলেন, ফিলিস্তিন ইস্যু মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি ও স্থিতিশীলতার সঙ্গে যেমন জড়িত তেমনি এটি আন্তর্জাতিক ন্যায় বিচার ও মানবাধিকারের প্রশ্ন। এ ব্যাপারে চীনের অবস্থান সুদৃঢ় এবং স্বচ্ছ।

শি জিনপিং বলেন, চীন মনে করেন দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধান হচ্ছে ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সঙ্কট নিরসনের সবচেয়ে ভালো উপায় এবং সমমর্যাদার ভিত্তিতে সংলাপের মাধ্যমে এ সংকট সমাধানের পক্ষে বেইজিং।

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংকট সমাধানের জন্য আন্তর্জাতিক সমাজকে সঠিক ও স্বচ্ছ অবস্থান গ্রহণ এবং এ সঙ্কট সমাধানে প্রচেষ্টা জোরদার করার আহ্বান জানান।

0 Shares