খু’নি রবিউল, যুবদল থেকে আওয়ামী লীগে ঢুকেই কোটিপতি!

0 Shares

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপির অঙ্গসংগঠন যুবদলের ইউনিয়ন কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম ওরফে খু’নি রবি ২০১২ সালে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। নসিমনচালক থেকে মাত্র ৮ বছরে কোটিপতি বনে যান তিনি। নাটোরের সিংড়া এলাকায় সন্ত্রা’সের রাজত্ব কায়েম করেছেন। একের পর এক দখ’ল করছেন অন্যের পুকুর ও জমি। রবি এখন সিংড়ার চৌগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

গত বছরের ১০ অক্টোবর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে তাকে দেওয়া হয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদ। এ নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে সমালোচনার ঝড় বইছে। কীভাবে একজন খু’নের মামলার আসামি এমন পদ পেলো- এ নিয়ে ত্যাগী নেতারা সমালোচনা করছেন।

জমি নিয়ে বিরো’ধের জেরে সম্প্র্রতি রবি ও তার সহযোগীরা আওয়ামী লীগ নেতার স্ত্রী শিল্পীকে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেন। এ ঘটনায় রবিকে প্রধান আসামি করে ১৫ জনের নামে সিংড়া থানায় একটি মামলা করেন শিল্পীর মেয়ে ইতি খাতুন।

জানা যায়, একসময় রবি চৌগ্রাম ইউনিয়ন যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। এলাকায় নসিমন (ভটভটি) চালিয়ে জীবনযাপন করতেন। কিন্তু ২০১২ সালে আওয়ামী লীগে যোগদান করে রাতারাতি বাড়ি-গাড়ির মালিক বনে যান। সুদের ব্যবসা, পুকুর দখ’ল ও চাঁদা’বাজির তার আয়ের উৎস। রবির নামে ২০০৬ সালে চৌগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজাহার আলী হ’ত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

একই ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল বাসার শিপলুকে হ’ত্যার উদ্দেশ্যে ক্ষু’র চালান রবি। প্রাণে বাঁচলেও শিপলুর শরীরে ৯৯টি সেলাই দিতে হয়। বিএনপি ক্ষমতায় থাকার কারণে তখন মামলা থেকে রেহাই পান রবি। পরে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করে আবার এলাকায় সন্ত্রা’সের রাজত্ব কায়েম করেন। আর এসব হাইব্রিড ও সুবিধাভোগী আওয়ামী লীগ নেতার কারণে আজ ত্যাগী নেতাকর্মীরা প্রতিনিয়তই নির্যা’তিত হচ্ছেন বলে দলীয় নেতাকর্মীরা বলছেন।

সিংড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি মতিয়ার রহমান মিলন বলেন, গত বছর রবির নেতৃত্বে আমাকে হ’ত্যার চেষ্টা করা হয়। এ বিষয়ে মামলা করেও কোনো প্রতিকার পাইনি। আমি সুষ্ঠু বিচার চাই।

উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা বীর মুক্তিযো’দ্ধা কমান্ডার আবদুল ওয়াদুদ দুদু বলেন, আমার একটি পুকুর প্রায় ৭ বছর ধরে দখ’ল করে রেখেছে রবি। নসিমনচালক রবি এখন কোটিপতি, ২টি ট্রাকসহ অনেক সম্পত্তির মালিক বনে গেছে।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবির মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

সিংড়া থানার ওসি নুর-এ-আলম সিদ্দিকী জানান, গত ৬ সেপ্টেম্বর চৌগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী মণ্ডলের স্ত্রী শিল্পীকে হ’ত্যা করে পালিয়ে যান রবিউল ইসলাম রবি। তাকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশি অভিযান চলছে। তার নামে সিংড়া থানায় হ’ত্যাসহ ৪টি মামলা রয়েছে।

0 Shares