করোনাকালে বিশ্বের অর্থনৈতিক সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র উপায় ইসলামী অর্থনীতি: এরদোগান

476 Shares

তুরস্কের রাষ্ট্রপতি রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, করোনার এই পরিস্থিতিতে বিশ্ব যেই অর্থনৈতিক সংকটের সাথে মোকাবেলা করছে তা থেকে মুক্তি দিতে পারে একমাত্র ইসলামি অর্থনীতি।

রোববার, ১৪ জুন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ইসলামিক অর্থনীতি ও ফিনান্স সম্পর্কিত দ্বাদশ আন্তর্জাতিক সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যে এ কথা বলেন।

দীর্ঘমেয়াদী অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রতি লক্ষ্য রেখে বক্তব্য দেওয়ায় করোনভাইরাস মহামারীর কারণে অর্থনৈতিক পতনের যে পটভূমি বিশ্বের সামনে উপস্থাপিত হয়েছে তার মন্তব্য সেটার বিপরীতে হয়েছিল।

এরদোগান ইসলামী বন্ডের কথা উল্লেখ করতে গিয়ে বলেন, দীর্ঘমেয়াদী বড় অবকাঠামোতে বিনিয়োগের অর্থ প্রদানের জন্য সুকুকের মতো পণ্যগুলি ব্যবহার করা উচিত।

তিনি বলেন,বর্তমান অর্থনৈতিক মডেলে যেসমস্ত বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তার বিপরীতে আয় এবং সম্পদের বন্টন ধীরে ধীরে সারা বিশ্বে খারাপ হয়ে যাচ্ছে এবং দেশগুলির মধ্যে অর্থনৈতিক ব্যবধান দিন দিন আরো বিস্তৃত হচ্ছে।

এসময় তিনি সবাইকে সতর্ক করে বলেন, আর্থিক খাতে শুরু হওয়া প্রতিটি সংকট দ্রুত বাস্তব সেক্টরে ছড়িয়ে পড়ে এবং নতুন বেকারদের একটি বিশাল গোষ্ঠী তৈরি করে।

বিভিন্ন সেক্টরে সক্ষমতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সরকারের যে তৎপরতা রয়েছে তার অংশ হিসেবে এই বছরের শুরুতে তুর্কী সরকারের ক্রেডিট রেটিং সংস্থা ‘মুডি’ ঘোষণা দিয়েছে যে তুরস্কের ইসলামী ব্যাংকিং সম্পদ এক দশকের মধ্যে দ্বিগুণ করতে হবে।

তুরস্ক নিজেদেরকে সর্বসাধারণের অংশগ্রহণ বান্ধব ব্যাংকিং এবং ইসলামিক অর্থায়নের কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তুলতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য,দেশের অর্থনীতিতে বৈশ্বিক মহামারীর প্রভাব থাকার পরেও তুরস্ক বিশ্বের ১২৫টি দেশে চিকিৎসা সহায়তা প্রেরণ করেছে।

এর প্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, নিজ দেশের জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার পাশাপাশি আমরা বিশ্বের ১২৫টি দেশে চিকিৎসা সহায়তা প্রেরণ করেছি।

দেশের প্রথম ত্রৈমাসিক প্রবৃদ্ধির ৪.৪% অংশকে চিহ্নিত করে এরদোগান এসময় বলেন, তুরস্ক দেখিয়েছে যে তারা কেবল স্বাস্থ্য খাতে নয় বরং অর্থনীতিতেও অন্যান্য দেশ থেকে নিজেকে ইতিবাচকভাবে আলাদা করে উপস্থাপন করতে সক্ষম।

476 Shares